আজকের রান্নার মেনু, অতি সুস্বাদু দই ও কাতলা মাছের রেসিপি, Today’s cooking menu, আজকেরের রান্নার

আজকের রান্নার মেনু, অতি সুস্বাদু দই ও কাতলা মাছের রেসিপি, Today's cooking menu, আজকেরের রান্নার

বাঙালি মানেই মাছ ভাত, মাছ ছাড়া বাঙালির দিন চলে না। এ কথাটাকে সত্যি করতে বাঙালি জাতি একেবারে উঠে পড়ে লেগেছে বহু কাল আগে থেকে। দুপুরের মাছ ছাড়া ভাত বা দই কাতলার সুন্দর তরকারি ছাড়া ভাত খাওয়া বাঙালি ভাবতেই পারে না। এছাড়া পশ্চিমবঙ্গ নদী মাত্রিক রাজ্য, এখানে নদী-নালা, পুকুরের,খাল বিলের কোনো অভাব নেই। সেখানেই ছড়িয়ে ছিটিয়ে রয়েছে মিষ্টি জলের নানান রকম সুস্বাদু মাছ। নিত্য নতুন সুস্বাদু ও লোভনীয় সেই সমস্ত মাছ দিয়ে বানানো হয়েছে নিত্য নতুন মাছের রেসিপি। বর্তমান মাছের বাজারে গেলে আপনাকে সাধারণ কোনো মাছ কিনতে গেলেই কম সে কম ১৫০- ২০০ টাকা দিতে হবে কেজি প্রতি। ইলিশ বা এজাতীয় দামি মাছের জন্য ৮০০- ১২০০ টাকা দিতে হবে কেজি প্রতি। যাই হোক বাঙালির তাতে কি বা আসে যায়।

বাজার দর কে তোয়াক্কা না করেই সেই কোন যুগ থেকে বাঙালির প্রিয় খাদ্য তালিকার মধ্যে মাছ তার জায়গাটি একেবারে পাকা করে নিয়েছে। রুই, কাতলা, মৃগেল, কই, টেংরা, ভোলা, ইলিশ, চিংড়ি, পমফ্রেট, লইট্টা, শুটকি, ভেটকি, বোয়াল কিছুই বাদ দেয় না পশ্চিমবঙ্গ বা বাংলাদেশের মানুষ। ঝোল, ঝাল, অম্বল, মাছের মুড়ো, লেজ, দেহ সবই বাঙালির ভীষণ প্রিয় খাবার, শুধু ভালো রেসিপি ও সুন্দর করে তরকারী পাকানো তারপর তো আপনি জানেন।

এছাড়াও ডাক্তারি মত অনুযায়, সুস্বাস্থ্যের জন্য প্রতিদিন খাদ্যতালিকায় মাছ রাখা প্রয়োজন। নিয়মিত মাছ খেলে দেহের মেটাবলিজম বৃদ্ধি পায়, দৃষ্টিশক্তি উন্নতি করে, গর্ভবতী মায়েদের জন্য মাছ ভীষণ জরুরি, মাছ হলো বহু উপকারিতার প্রাণী। ছোট মাছ খুব সহজেই পাওয়াযায়, ছোট মাছে উচ্চ ক্যালসিয়াম থাকে তাই যারা হাড়ের বা দাঁতের রোগে ভুগছেন, তারা ছোটো মাছ খান। রান্নার সময় মাছ গুলি হালকা ভেজে তুলে নিয়ে মাছ রান্না করুন, খুব বেশি ভাজবেন না, তাতেই মাছের পুষ্টিগুণ বজায় থাকবে। আজ আমাদের রেসিপি ‘অতি সুস্বাদু দই ও কাতলা’।

আজকের রান্নার মেনু, অতি সুস্বাদু দই ও কাতলা মাছের রেসিপি, Today's cooking menu, আজকেরের রান্নার
আজকের রান্নার মেনু, অতি সুস্বাদু দই ও কাতলা মাছের রেসিপি, Today’s cooking menu, আজকেরের রান্নার

আজকের রান্নার উপকরণঃ কাতলা মাছ পরিমান মতো বা ১ কেজি, পেঁয়াজ কুচে বাটুন, আদা বাটা, রসুন বাটা, টক দই, সরষের তেল, চিনি, গুঁড়ো লংকা, নুন, এলাচ, হলুদ গুঁড়ো, দারচিনি লবঙ্গ, পরিমান মতো রান্নার পানি।

আজকের রান্নার প্রণালীঃ প্রথমে আপনাকে একটি পাত্রের মধ্যে টক দই পেঁয়াজ বাটা, আদা বাটা, রসুন বাটা, লঙ্কাগুঁড়ো, হলুদ গুঁড়ো দিয়ে ভালো করে ফেটিয়ে সুন্দর মিক্সার বানিয়ে রাখতে হবে। তারপর আপনাকে কড়াইয়ে সরষের তেল গরম করতে হবে। মাছ গুলো সামান্য বা পরিমান মতো ভেজে তুলে রাখতে হবে। তেল টা পরিমান মতো গরম হলে লবঙ্গ, দারুচিনি ও এলাচ দিতে হবে। ভালো করে ভাজা হয়ে যাবার পরে বাজার থেকে আনা টক দই এর মিশ্রণটি দিয়ে দিতে হবে। সময় দিয়ে সুন্দর করে কষাতে হবে, আপনার ও রান্নার অভিজ্ঞতা আছে তাই পরিমান মতো কষানো হয়ে গেলে মাছের টুকরোগুলো দিয়ে দিতে হবে তাতে। অল্প একটু মিষ্টি এবং স্বাদমতো লবন দিয়ে প্রয়োজন একটু জল দিয়ে ঢাকা দিতে হবে কিছু সময়ের জন্য। মাছ সিদ্ধ হয়ে গেলে ভাবেন আজকের রান্নার মেনু তৈরী, গরম গরম পরিবেশন করুন অতি সুস্বাদু দই ও কাতলা মাছের তরকারি। ভাত, পোলাও কিংবা ফ্রাইড রাইসের সঙ্গে দারুন লাগবে অতি সুস্বাদু দই ও কাতলা মাছের তরকারি।

“অতি সুস্বাদু দই ও কাতলা মাছের রেসিপি” পোস্ট টি কেমন লাগলো জানাতে ভুলবেন না। আমরা এমনি “অতি সুস্বাদু দই ও কাতলা মাছের রেসিপি” ও অন্যান্য পোস্ট করতে ভালোবাসি, আপনারা এমনি আরো পোস্ট পাবার জন্য আমাদের ওয়েবসাইটটি Subscribe করুন।

সুন্দরবনের মধুর গুণ ।। সুন্দরবনের খাঁটি মধু সংগ্রহের পিছনে প্রাণের ঝুঁকি ।। Honey of the Sundarbans

সুন্দরবনের মধুর গুণ ।। সুন্দরবনের খাঁটি মধু সংগ্রহের পিছনে প্রাণের ঝুঁকি ।। Honey of the Sundarbans

সুন্দরবনের খাঁটি মধু সংগ্রহের পিছনে প্রাণের ঝুঁকি খুবই, সুন্দরবনের মধু সংগ্রহ করতে যাওয়া একটি খুবই ভয়াবহ কাজ, সে মোটেও সহজ নয়। এখানে বহু মানুষ জীবিকা নির্বাহের জন্য সুন্দরবনের খাঁটি মধু সংগ্রহ করতে আসে আর নিজেদের প্রাণ হারায়। জঙ্গলের আনাচে-কানাচে থেকে কখন যে রয়েল বেঙ্গল এর হানা হয়ে যায় তা কেউই ধরতে পারেনা। তাই প্রায়ই মধু সংগ্রহকারী ও অন্যান্য জীবিকা ধারী সুন্দরবনের আসা মানুষদের প্রাণ যায়।

Asgar Molla

Hi i am Asgar, I am a Graphic Designer & Fine Artist. The "Best Messages" is my blogging website. I am working on Varity of wishes, as like Happy Birthday, Happy Anniversary, Good Morning and Night post etc. You can read and share our messages and videos with your dear one. Thank you!

Leave a Reply

%d bloggers like this: